LT খালি পদ 2023: এলটি, শিক্ষকের পদে নিয়োগ না পেলে যুবক-যুবতীরা অবস্থান করেছেন।

LT খালি পদ 2023: এলটি, শিক্ষকের পদে নিয়োগ না পেলে যুবক-যুবতীরা অবস্থান করেছেন।

সরকার বেকারত্তা এবং বৃদ্ধির চরম সীমা দেখে এলটি পদে নিয়োগ চালাতে ব্যবস্থা নিয়েছিল। এতে অনেক প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছেন, কিন্তু কিছু পদ এখনো খালি আছে। যুবকরা চাচ্ছেন যে সরকার তাদের এই পদে টি-জি-টি এবং পি-জি-টি শিক্ষকদের সহযোগিতায় ব্যবহার করতে। এই দাবি বহুদিন ধরে চলছে, কিন্তু সরকার তাদের কথা শোনতে চাচ্ছে না, যা কারণে অবস্থা সহজেই অস্তিত্বান্তর পায় এবং ছাত্ররা ধর্ণা নেয়ার জন্য প্রস্তুত হয়।

একটা এমন বড় আলোচনা কয়টি পদে চলছে?

এই পদগুলির জন্য ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীকে একটি জ্ঞাপন প্রেরণ করা হয়েছিল। যেখানে আবেগ ছিল যে, উত্তর প্রদেশ শিক্ষা সেবা আয়োগকে দ্রুত কর্মকর্তাবৃন্দ করা হোক। এছাড়া, 2022 তে টি-জি-টি এবং পি-জি-টি বিজ্ঞাপনে 25,000 খালি পদে ছাত্র-ছাত্রীদের যোগ দেওয়া হতো। যদি প্রধানমন্ত্রী জি এই জ্ঞাপনটি গম্ভীরভাবে নেয়ে এবং ছাত্রদের চাহিদাগুলি পূর্ণ করে তানি। তবে আজ এটা ঘটনার সম্ভাবনা হয়নি।

ধর্না কখন থেকে এবং কোথা থেকে শুরু হয়েছে?

ধর্না শুরু হয় যখন যুবশক্তির দ্বারা কোনও চাহিদা সরকার পূর্ণ হতে পারে না। যুবশক্তি যা চায়, সরকার সেই কাজটি করে না। এই কারণে এই বিতর্কেও ধর্না শুরু হয়, কারণ সরকারের পূর্বেই দাবি করা হয়েছিল। সরকার ছাত্রদের দাবিকে অস্বীকার করেছে। এর ফলে ছাত্ররা অত্যন্ত উত্সাহিত হয়েছেন। পুলিশ ভর্তি ছাত্ররা এই ধর্নায় যোগ দিয়েছেন। পুলিশ ভর্তি ছাত্ররা দাবি করছেন যে ছাত্ররা ভর্তির সময় 3 বছরের ছুট পাবে। এখন পূর্বে পুলিশ ভর্তির সময় 5 বছরের ছুট দেওয়া হতো। কিন্তু এই বছর থেকে সেই ছুটও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। যার কারণে পুলিশ ভর্তি ছাত্ররা এই ধর্নায় অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন। এই ধর্না ইলাহাবাদের গিরিজাধর এলাকায় সোমবার আয়োজিত হয়েছিল, যেখানে অনেক ছাত্ররা তাদের উপস্থিতি প্রদান করেছে।

পুলিশ পদে নিয়োগের বয়স সম্পর্কে ছাত্রদের আন্দোলন শুরু হয়েছে।

পুলিশ পদে নিয়োগের জন্যও ছাত্ররা আন্দোলন শুরু করেছে। তাদের আবেগ হলো পুলিশ নিয়োগের বয়স সীমা বাড়ানো হোক। এই আগামীর নিয়োগে পুলিশ পদের বয়স সীমা শুধু মাত্র তিন বছর হবে। এ আগে সকল ছাত্রদের জন্য পুলিশ নিয়োগের বয়সে পাঁচ বছরের ছুট থাকতো। তবে ছাত্ররা মনে করছে যে, সরকার তাদের সাথে অবজ্ঞানে চলছে। তাই তারা প্রযাগরাজের গিরজাঘর এলাকায় সোমবার একটি ধর্না আয়োজন করেছে।

এলটি এবং শিক্ষক পদের জন্য আন্দোলনটি কখন চলবে?

এই আন্দোলনটি ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩ মঙ্গলবারে শুরু হয়েছিল। কিন্তু আন্দোলনটি কতক্ষণ চলবে তা কথা বলা কঠিন হতে পারে। কারণ তখন পর্যন্ত ছাত্রদের প্রয়োজনীয়তা পূর্ণ হয়না যাবে তবুতো তাদের ধরনা বন্ধ হবেনা।

 

Leave a comment